• Page Views 103

নারীরা রাজপথে কেন পুলিশি নিগ্রহের শিকার?

কয়েক দিনের ব্যবধানে বাংলামোটরের দুটি ভিন্ন চিত্র। প্রথম চিত্রটি ছিল ৭ মার্চ আওয়ামী লীগের সমাবেশে যোগদানকারী একদল উচ্ছৃঙ্খল যুবক বাসের অপেক্ষায় থাকা এক কলেজছাত্রীকে লাঞ্ছিত করলে সেখানে কর্তব্যরত একজন পুলিশ সদস্য তাঁকে ওই দুর্বৃত্তদের হাত থেকে উদ্ধার করেন। পরে তিনি একটি বাসে মেয়েটিকে তুলে দেন।
আর এর তিন দিন পর ১০ মার্চ একই স্থানে কয়েকজন আন্দোলনকারী নারী পুলিশের হাতে নিগ্রহের শিকার হন। কোনো রাজনৈতিক দলের সদস্য হিসেবে তাঁরা রাস্তায় নামেননি। তাঁরা রাস্তায় নেমেছেন চাকরির বয়সসীমা বাড়ানোর দাবিতে। আরও অনেকের মতো তাঁরাও চাকরির বয়সসীমা বাড়ানোর দাবিতে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করে আসছেন।
প্রথম আলোর খবর অনুযায়ী, চাকরিতে ঢোকার বয়স ৩৫ বছর করার দাবিতে আন্দোলনরত প্রার্থীদের বেশ কয়েকজনকে আটক করেছ পুলিশ। আন্দোলনকারীদের দাবি, তাঁদের অন্তত ২৫ জনকে আটক করা হয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাতে ওই প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, চাকরিতে ঢোকার বয়স ৩৫ করার দাবিতে একদল আন্দোলনকারী সকাল সাড়ে দশটা থেকে শাহবাগ জাদুঘরের সামনে অবস্থান নিতে শুরু করেন। বেলা ১১টার দিকে দুই শতাধিক আন্দোলনকারী সেখানে অবস্থান নেন। প্রায় এক ঘণ্টা তাঁরা সেখানে থেকে ওই দাবিতে স্লোগান দেন। একপর্যায়ে তাঁরা সেখান থেকে বাংলামোটরের দিকে মিছিল নিয়ে যেতে চাইলে পুলিশ বাধা দেয়। আন্দোলনকারীরা বাধা উপেক্ষা করে মিছিল করতে গেলে পুলিশ তাঁদের লাঠিপেটা করে। এ সময় পুলিশের পিটুনি ঠেকাতে নারী আন্দোলনকারীরা এগিয়ে এলে পুলিশ তাঁদেরও পিটুনি দেয়। আন্দোলনকারীদের দাবি, তাঁদের শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে পুলিশ হামলা চালিয়ে অন্তত ২৫ জনকে ধরে নিয়ে যায়।
সাধারণ ছাত্র পরিষদের ব্যানারে যেসব আন্দোলনকারী শাহবাগে সমবেত হয়েছিলেন, তাঁরা কেউ উচ্ছৃঙ্খল আচরণ করেছেন, সে দাবি পুলিশও করেনি। তাঁরা মিছিল করে বাংলামোটরে গেলে পুলিশ সেখানে তাঁদের বাধা দেয়। আইনশৃঙ্খলা রক্ষার জন্য সেটি তারা করতেই পারে। তাই বলে নারী আন্দোলনকারীদের নিয়ে পুলিশের পুরুষ সদস্যরা কেন এভাবে টানাহ্যাঁচড়া করবেন? রোববার প্রথম আলোর রাজধানী পাতার ছবিটির দিকে তাকিয়ে দেখুন। একজন পুলিশ সদস্য টেনেহিঁচড়ে নিয়ে যাচ্ছেন কয়েকজন আন্দোলনকারীকে। একজন নারী তাঁকে ঠেকানোর চেষ্টা করছেন। পুলিশ ও পুরুষ আন্দোলনকারীদের টানাটানির মধ্যে পড়ে নারী আন্দোলনকারীর অবস্থা খুবই শোচনীয় হয়ে পড়ে। আরেকটু হলেই তিনি রাস্তায় পড়ে যেতেন।
আরেকটি ছবিতে দেখা যায়, পুলিশ সেখানে পুরুষ চাকরিপ্রার্থীদের ধরে নিয়ে যায়। এসব নারী আন্দোলনকারী সামনে এলে পুলিশ তাঁদেরও পিটুনি দেয়। এটি কি ভব্যতা? নারীরা এখন চাকরির জন্য আন্দোলন করতে গিয়ে মার খাচ্ছেন। কলেজ থেকে বাড়ি ফেরার পথে রাজনৈতিক কর্মীদের হাতে নিগৃহীত হচ্ছেন। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের অন্যায় আচরণের বিরুদ্ধে কথা বলতে গিয়ে নিগৃহীত হচ্ছেন। প্রেসক্লাবের সামনে আন্দোলন করতে গিয়ে মার খাচ্ছেন।
নারীদের বাধা দিচ্ছেন পুলিশের সদস্যরা। শাহবাগ, ঢাকা।

নারীদের বাধা দিচ্ছেন পুলিশের সদস্যরা। শাহবাগ, ঢাকা।

সাধারণত কোনো কর্মসূচিকে নারীরা থাকলে তাঁদের সামাল দিতে নারী পুলিশ সদস্যদের মোতায়েন করা হয়। কিন্তু গতকাল শাহবাগ ও বাংলামোটরে কোনো নারী পুলিশ ছিলেন না। তাঁদের কাজটিই করানো হয়েছে পুরুষ সদস্যদের দিয়ে। এটি সম্পূর্ণ অনৈতিক ও বেআইনি।
বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীতে অনেক নারী সদস্য রয়েছেন। তর্কের খাতিরে যদি আমরা ধরে নিই আন্দোলনকারী নারীরা বাড়াবাড়ি করেছেন, তারপরও সরকারের উচিত ছিল নারী পুলিশদের দিয়ে তাদের সামাল দেওয়া। এই ছবি পত্রিকায়, টিভিতে যখন ওই পুরুষ পুলিশ সদস্যদের স্ত্রী ও মেয়েরা দেখবেন, তাঁরা কী ভাববেন। স্ত্রীরা ভাববেন, তাঁদের স্বামীরা রাস্তায় নারীদের ওপর নিগ্রহ করেন। কন্যারা ভাববেন, তাঁদের বাবারা রাস্তায় নারী নিগ্রহ করেন।
দীর্ঘদিন ধরেই চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩০ থেকে ৩৫ বছর করার দাবিতে সাধারণ ছাত্র পরিষদ আন্দোলন করে আসছে। তাদের দাবি কতটা যৌক্তিক, তা নিয়ে বিতর্ক থাকতে পারে। যাঁরা চাকরির বয়সসীমা ৩৫ বছর করার পক্ষে তাঁদের যুক্তি হলো বাংলাদেশে বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়াশোনা শেষ করতে ২৭-২৮ বছর চলে যায়। চাকরির বয়সসীমা না বাড়ালে অনেকের পক্ষে আবেদন করা বা প্রস্তুতি নেওয়া সম্ভব হয় না।
সাধারণ ছাত্রপরিষদ সরকারের কাছে চাকরি দেওয়ার জন্য বাড়তি কোনো সুবিধা চায় না। তারা বলছে না বয়স হয়ে গেছে বলে তাদের জন্য আলাদা কোটাব্যবস্থা রাখা হোক। তারা চায় চাকরির পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগটুকু। অন্যান্য পরীক্ষার্থীর সঙ্গে প্রতিযোগিতা করে যদি পরীক্ষায় টিকে যায় চাকরি পাবে, না টিকলে পাবে না। তারপরও সরকার বিষয়টি ঝুলিয়ে রেখেছে। পৃথিবীর অনেক দেশে যেকোনো বয়সে যেকোনো ব্যক্তি চাকরি নিতে পারেন। আবার অনেক দেশে বয়স বেঁধে দেওয়া হয়। বাংলাদেশে একসময় চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ২৭ বছর ছিল। আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে তিন বছর বাড়ানো হয়েছে। আগে অবসরের বয়সসীমা ছিল ৫৭ বছর। এখন সেটি ৫৯ করা হয়েছে।
সে ক্ষেত্রে চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা বাড়ানোর বিষয়টি সরকার গুরুত্বের সঙ্গে ভাবতে পারে। এখানে হাজার হাজার নয়, লাখ লাখ তরুণের জীবনই শুধু নয়, তাঁদের পরিবার-পরিজনের অস্তিত্বও জড়িত। চাকরি পাওয়ার পথ বন্ধ হলে এই উচ্চশিক্ষিত তরুণেরা কোথায় যাবেন? আর কত দিন রাস্তায় পুলিশের মার খাবেন?

সূত্র:প্রথম আলো

Share

বিএনপির সমাবেশে বাধা, মানবাধিকার সংগঠনগুলোর নিন্দা

Next Story »

জামিন পেলেন খালেদা জিয়া

Leave a comment

LifeStyle

  • ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে কাঁচামরিচ!

    4 months ago

    রান্নাঘরের অন্যতম প্রয়োজনীয় একটি উপাদান হলো কাঁচামরিচ। রান্নায় বা সালাদে তো বটেই, কেউ কেউ ভাতের সঙ্গে আস্ত কাঁচামরিচ খেতেও পছন্দ করেন। কিন্তু আমরা অনেকেই জানি না যে ...

    Read More
  • নিম পাতার গুণাগুণ

    4 months ago

    নিমগাছের পাতা, তেল ও কাণ্ডসহ নানা অংশ চিকিৎসা কাজে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। নানা রোগের উপশমের অদ্ভুত ক্ষমতা রয়েছে এ গাছের। এ লেখায় থাকছে তেমনই কিছু ব্যবহার। ম্যালেরিয়া ...

    Read More
  • ডায়েটের কিছু ভুল

    4 months ago

    আজকাল মোটা হওয়া যেন কারোই পছন্দ না। কিন্তু ডায়েট করেও কাঙ্ক্ষিত ফল পাচ্ছেন না অনেকেই। কারণ, ডায়েটের সময় আমরা এমন কিছু ভুল করি যেগুলোর জন্য মেদ কমাতো ...

    Read More
  • পুষ্টিগুণে ভরপুর আনারসের জুস

    4 months ago

    আনারস শুধু সুস্বাদের জন্যই নয়, স্বাস্থ্যের জন্যও উপকারী। রসালো এ ফল জুস তৈরি করেও খাওয়া যায়। সারাদিন রোজা রেখে সুস্থ থাকতে অসংখ্য পুষ্টিগুণে ভরপুর আনারসের জুস যেমন ...

    Read More
  • অ্যাসিডিটিতে এখন যেমন খাবার…

    4 months ago

    রোজার মাসে সবাই যেন খাবারের প্রতিযোগিতায় নেমে পড়ে। সারা দিন না খাওয়ার অভাবটুকু ইফতারে পুষিয়ে নেওয়ার জন্য কি এই প্রতিযোগিতা? কে কত খেতে বা রান্না করতে পারে। ...

    Read More
  • ইফতারে স্বাস্থ্যকর ফল পেয়ারা

    4 months ago

    প্রতিদিনের ইফতারে ভাজাপোড়া কম খেয়ে বিভিন্ন ফল খাওয়া উত্তম বলে মত দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। তাই আপনার ইফতারে থাকতে পারে অতি পরিচিত এই ফলটি। প্রতিদিন মাত্র ১টি পেয়ারা আপনার ...

    Read More
  • রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় লেবুর শরবত

    4 months ago

    গরমে যখন তীব্র দাবদাহে ক্লান্ত, ঠিক তখনই ইফতারে এক গ্লাস লেবুর শরবত হলে প্রাণটা জুরিয়ে যায়। শুধু শরবত হিসেবেই নয়, ওজন কমাতেও অনেকেই লেবুর শরবত খান। কিন্তু ...

    Read More
  • অ্যালার্জি ও সর্দি হয় যে কারণে

    4 months ago

    সাধারণত যারা বেশি পরিমাণে ঘরের বাইরে থাকেন তাদের মধ্যে সর্দি বা এলার্জির পরিমাণ বেশি লক্ষ্য করা যায়। তবে ঘরের ভেতরে অনেক বস্তু রয়েছে যেগুলো কারো মধ্যে এলার্জি ...

    Read More
  • প্রতিদিন কাঁচা পেঁয়াজ খেলে কি উপকার হয়?

    4 months ago

    ‘যত কাঁদবেন, তত হাসবেন’- পেঁয়াজের ক্ষেত্রে এই কথাটা দারুণভাবে কার্যকরী। কারণ এই সবজি কাটতে গিয়ে চোখ ফুলিয়ে কাঁদতে হয় ঠিকই। কিন্তু এই প্রাকৃতিক উপাদানটি শরীরেরও কম উপকার ...

    Read More
  • রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় হলুদ

    4 months ago

    রান্নাে মশলা হিসেবে অতি পরিচিত হলুদ। ভিটামিন সি, ভিটামিন ই, ভিটামিন কে, ক্যালসিয়াম, কপার, আয়রনের পাশাপাশি এতে আছে প্রচুর পরিমাণ অ্যান্টি অক্সিডেণ্ট, অ্যান্টিভাইরাল, অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল, অ্যান্টিকারসিনোজেনিক, অ্যান্টি ইনফ্লামেটরি ...

    Read More
  • Read

    More